পঞ্চাশের আলোয় স্বাধীনতার দ্যুতি!

1
289
পূর্ব দিগন্তে সূর্য উঠেছে –
রক্তলাল রক্তলাল রক্তলাল!
জোয়ার এসেছে জনসমুদ্রে-
রক্তলাল রক্তলাল রক্তলাল!
অতঃপর মা আমি ফিরে এলাম তোমার বুকে কিংবা এ মাটির বুকে,
বুঝে নাও রক্তের দামে কেনা তোমার  রক্তাক্ত বিজয়!”!
৫০তম  বিজয় দিবসে সর্বপ্রথমে হৃদ্য়স্থল থেকে গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি বাংলাদেশের স্থপতি বাঙালি জাতির মহামানব জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে, সেই সাথে স্মরণ করছি বঙ্গবন্ধুর অন্যতম সহচরসহ মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্ম বিসর্জকারী সকল শহীদদের। আজ বাঙালি জাতির ৫০ তম রক্তিম বিজয় দিবসে  আমার পক্ষ থেকে  দেশবাসীকে জনাই বিজয়ের রক্তিম শুভেচ্ছা ও সালাম ।।
১৯৭১ সাল ডিসেম্বর মাস ১৬ তারিখ! আমাদের বিজয় এই স্বাধীনতার বিজয়, যা বাঙালির ইতিহাস সর্বোপরি বিশ্ব ইতিহাসে নজিরবিহীন। ৩০ লক্ষাধিক মানুষের প্রাণের বিনিময়ে অর্জিত এ বিজয়। মা বোনের সংরক্ষিত সম্ভ্রমের লুটপাটে  এ বিজয়।আমরা সেই সব আলোকিত মানুষকে স্মরন করছি যাদের আলোর পরশে এসেছে আমরা পেয়েছি  মুক্তমনে বাঁচার অধিকার । এরা সূর্যসন্তান এ বাংলার।প্রাণের মায়া ত্যাগে যারা দিলো এ বিজয় তাদের হাজারো সালাম। কত অন্তরায় কত বাধা পেরিয়ে এ বিজয় অর্জন। হাজারও দেশদ্রোহী জঞ্জালে উত্তপ্ত ছিলো এ মাটি । দেশদ্রোহী সন্তানেরা আজ  প্রায়  নিশ্চিহ্ন।তারপরে অালোর মাঝে অন্ধকার বিদ্যমান। তেমনি আজ ও আমাদের এই স্বাধীন দেশে কিছু অপশক্তি বিদ্যমান।১৯৭১ সালের ১৬ ই ডিসেম্বর রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে আমরা বিজয় অর্জন করলেও সত্যিকার অর্থে কি আমরা বিজয়ী? চাকরির করতে গেলে পর্যাপ্ত মেধা থাকা সত্ত্বেও আমরা হেরে যাচ্ছি টাকার কাছে ,শিক্ষায় পর্যাপ্ত মেধা থাকা সত্ত্বেও কিছু কিছু শিক্ষকের স্বজনপ্রীতির জন্য আমরা মেধাতালিকায় পিছিয়ে,পড়ছি, স্যারের কাছে টিউশন না পড়লে আমাদের ফেল করানো হচ্ছে ,চিকিৎসেবায় অগ্রাধিকার পাচ্ছে প্রভাবশালীরা, যাতায়াতে ভাড়ার ক্ষেত্রে চালকরা জোর করে বেশি ভাড়া নিচ্ছে, যানবাহনে আমাদের সামনে আমাদের মা বোন ইভটিজিংয়ের স্বীকার হচ্ছে প্রতিবাদ করার কেউ নেই, যা আমরা নিরবে সহ্য করছি। যেখানে পরাজয় স্বীকার করছি। মুক্তিযুদ্ধে শহীদরা সুধু যুদ্ধে বিজয় চান নি। তারা চেয়েছেন স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ। যেখানে থাকবে না দুর্নীতি,থাকবে না সন্ত্রাস, থাকবে না অপশক্তি। তাহলে আমরা আমাদের বিজয়ের স্বাদ গ্রহণ করতে পারবো।যারা প্রাণ দিলো তারাই ছিলো জয়ের সারথী।
মা মাটি চায়, মায়ের স্বাধীনতা যেখানে থাকবেনা চলার পথে কোন অবৈধ নিয়ন্ত্রণ।
এ আমার মায়ের মাটি, আমার ভাইয়ের রক্তের
প্রতিদানে ভাষার দেশ।
 তাই সকল বাংলার মানুষের প্রতি আমার করোজোড়ে নিবেদন এই দেশটাকে
ভালোবেসে মা মাটির অস্তিত্ব রক্ষার্থে এ  বিজয় দিবসের মহত্ত্ব নিয়ে আমরা আবার সেই বাঙালি হই যেখানে অজ্ঞ বিজ্ঞ
উঁচু নিচুর দৌরাত্ম্য নেই।নেই কোনো দুর্নীতি নেই কোনো সন্ত্রাস নেই কোনো সিন্ডিকেট।  তবেই পাবো আমরা সত্যিকারের বিজয় নতুবা এ বিজয় শুধুনামমাত্র।
সনেট মন্ডল

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here